কলা কীভাবে পাকানো হয়?

পাবলিশঃ one month ago
দেখেছেনঃ 200

কলা কীভাবে পাকানো হয়?


কলা পাকানোর বিভিন্ন উপায়

কলা একটি সুস্বাদু এবং পুষ্টিকর ফল যা বিভিন্নভাবে রান্না করা যায়। এটি ভাজা, সেদ্ধ, ডিম ভাজা, তরকারি, মিষ্টি, এমনকি ডেজার্ট তৈরিতেও ব্যবহার করা যেতে পারে।


কলা রান্নার জন্য কিছু জনপ্রিয় পদ্ধতি:


১) ভাজা কলা:


উপকরণ: কলা, তেল, লবণ, হলুদ গুঁড়ো, মরিচ গুঁড়ো (ঐচ্ছিক)।

প্রণালী:

কলাগুলো ধুয়ে খোসা ছাড়িয়ে পাতলা করে কেটে নিন।

একটি কড়াইতে তেল গরম করে কলাগুলো হালকা বাদামী করে ভেজে নিন।

লবণ, হলুদ গুঁড়ো এবং মরিচ গুঁড়ো (ঐচ্ছিক) দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন।

গরম গরম পরিবেশন করুন।

২) সেদ্ধ কলা:


উপকরণ: কলা, পানি, লবণ।

প্রণালী:

কলাগুলো ধুয়ে খোসা ছাড়িয়ে পানিতে ভিজিয়ে রাখুন।

একটি পাত্রে পানি ফুটিয়ে লবণ দিন।

পানিতে ভেজানো কলাগুলো দিয়ে ৫-৭ মিনিট সেদ্ধ করুন।

পানি ঝরিয়ে ফেলে গরম গরম পরিবেশন করুন।

৩) ডিম ভাজা কলা:


উপকরণ: কলা, ডিম, পেঁয়াজ কুচি, লবণ, মরিচ গুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো, তেল।

প্রণালী:

কলাগুলো ধুয়ে খোসা ছাড়িয়ে পাতলা করে কেটে নিন।

ডিমগুলো ফেটে লবণ, মরিচ গুঁড়ো এবং হলুদ গুঁড়ো দিয়ে মিশিয়ে নিন।

একটি কড়াইতে তেল গরম করে পেঁয়াজ কুচি ভেজে নিন।

পেঁয়াজ কুচির সাথে কলাগুলো দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন।

ডিমের মিশ্রণটি ঢেলে দিয়ে ডিম সেদ্ধ হওয়া পর্যন্ত রান্না করুন।

গরম গরম পরিবেশন করুন।

৪) তরকারি:


উপকরণ: কলা, পেঁয়াজ কুচি, রসুন কুচি, আদা বাটা, জিরা গুঁড়ো, ধনে গুঁড়ো, মরিচ গুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো, লবণ, তেল।

প্রণালী:

কলাগুলো ধুয়ে খোসা ছাড়িয়ে পাতলা করে কেটে নিন।

একটি কড়াইতে তেল গরম করে পেঁয়াজ কুচি, রসুন কুচি এবং আদা বাটা দিয়ে ভেজে নিন।

জিরা গুঁড়ো, ধনে গুঁড়ো, মরিচ গুঁড়ো এবং হলুদ গুঁড়ো দিয়ে মসলা কষিয়ে নিন।

কলাগুলো দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন।

লবণ এবং পানি দিয়ে ঢেকে রান্না করুন।

তরকারি ঘন হয়ে এলে নামিয়ে ফেলুন।

) মিষ্টি:


উপকরণ: কলা, চিনি, দুধ, ঘি, এলাচ গুঁড়ো, জায়ফল গুঁড়ো (ঐচ্ছিক)।

প্রণালী:

কলাগুলো ধুয়ে খোসা ছাড়িয়ে মসৃণ করে ব্লেন্ড করে নিন।

একটি পাত্রে দুধ এবং চিনি মিশিয়ে ফুটিয়ে নিন।

ব্লেন্ড করা কলা দিয়ে ঘন হওয়া পর্যন্ত রান্না করুন।

ঘি, এলাচ গুঁড়ো এবং জায়ফল গুঁড়ো (ঐচ্ছিক) দিয়ে মিশিয়ে নিন।

ঠান্ডা করে পরিবেশন করুন।

৬) ডেজার্ট:


উপকরণ: কলা, ওটমিল, দুধ, মধু, বাদাম কুচি (ঐচ্ছিক)।

প্রণালী:

কলাগুলো ধুয়ে খোসা ছাড়িয়ে মসৃণ করে ব্লেন্ড করে নিন।

একটি পাত্রে ওটমিল এবং দুধ মিশিয়ে ফুটিয়ে নিন।

ব্লেন্ড করা কলা এবং মধু দিয়ে মিশিয়ে নিন।

বাদাম কুচি দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

কিছু টিপস:


পাকা কলা রান্নার জন্য সবচেয়ে ভালো।

কলা ভাজার সময় বেশি তেল ব্যবহার করবেন না।

তরকারি রান্নার সময় কলা খুব বেশি সেদ্ধ করবেন না যাতে নরম না হয়ে যায়।

মিষ্টি তৈরির সময় চিনি আপনার পছন্দ অনুযায়ী কম বা বেশি করতে পারেন।

ডেজার্টে আপনার পছন্দের ফল, বাদাম বা মশলা যোগ করতে পারেন।

উপসংহার:


কলা একটি বহুমুখী ফল যা বিভিন্নভাবে রান্না করা যায়। উপরে উল্লেখিত রেসিপিগুলো ছাড়াও আরও অনেক রকমের  পদ তৈরি করা সম্ভব।



কলা সম্পর্কিত অন্যান্য প্রশ্ন সমূহ

কলা কীভাবে পাকানো হয়?
কলার স্বাস্থ্য উপকারিতা কি কি?
কমলা
বিশ্বের বৃহত্তম কলা উৎপাদনকারী দেশ কোনটি?
কলা কিভাবে উৎপাদিত হয়?
কলা দিয়ে কি কি রান্না করা যায়?
কলার বিভিন্ন জাত কি কি
কলা দিয়ে কি কি রান্না করা যায়?